ভৌতজগৎ ও পরিমাপ | HSC পদার্থবিজ্ঞান Notes

পদার্থবিজ্ঞান প্রথম পত্র নোট
ভৌতজগৎ ও পরিমাপ নোট

ভৌত জগতের প্রকৃতি | Nature of Physical World

বায়ুমণ্ডল

অভিকর্ষীয় বলের প্রভাবে যে বায়বীয় অংশটি পৃথিবী পৃষ্ঠকে ঘিরে রেখেছে তাকেই বায়ুমণ্ডল বলে।

পদার্থবিজ্ঞানের পরিসর ও বিস্ময়কর অবদান | The Scope and Excitement of Physics


পদার্থবিজ্ঞানে | In Physics

ধারণা বা প্রত্যয় কী?

ধারণা হলো কোনো ভাব বা চিন্তাধারা বা কোনো অমূর্ত নীতি বা কোনো সাধারণ অভিমত। কোনো কিছু সম্পর্কে সঠিক উপলব্ধি বা বোধগম্যতা হলো ঐ বিষয় সম্পর্কে ধারণা।

অনুকল্প কী?

অনুকল্প হলো এমন ব্যাখ্যা বা সূত্র বা তত্ত্ব যা এখনো সঠিকভাবে প্রমাণিত হয়নি।

কোনো পর্যবেক্ষণ, ঘটনা বা বৈজ্ঞানিক সমস্যার জন্য একটি সম্ভাব্য ব্যাখ্যা যা আরও অনুসন্ধ্যানের মাধ্যমে যাচাই করা যায় তাকে অনুকল্প বলে।

স্বীকার্য কাকে বলে?

সাধারণত কোনো বৈজ্ঞানিক তত্ত্ব একটি সার্বিক বিবৃতি দিয়ে শুরু হয়। একে বলা হয় স্বীকার্য। স্বীকার্য হলো তা যা সত্য বলে স্বীকার করে নিয়ে এর উপর ভিত্তি করে কোনো যুক্তি বা তত্ত্ব প্রদান করা হয়। স্বীকার্য তত্ত্বটির ভিত্তি প্রদান করে।

তত্ত্ব কাকে বলে?

কোনো কিছু ব্যাখ্যার জন্য যে আনুষ্ঠানিক চিন্তাধারা, ভাব বা ধারণা তাকে তত্ত্ব বলে।

সূত্র কী?

সাধারণভাবে কোনো নির্দিষ্ট শর্তে বা অবস্থায় সবসময় কী ঘটবে তার বর্ণনা হলো সূত্র।

নীতি কাকে বলে?

যেসব সাধারণ সূত্র বিজ্ঞান বা পদার্থবিজ্ঞানের ভিত্তি এদের বলা হয় নীতি। কোনো যুক্তিতর্ক বা কাজের ভিত্তি হিসাবে যে মৌলিক সত্য বা তত্ত্বকে বিবেচনা করা হয় তাই হচ্ছে নীতি।

পদার্থবিজ্ঞান ও অন্যান্য জ্ঞানের জগৎ | Physics and Different Fields of Knowledge


স্থান, সময় ও ভর | Space, Time and Mass


মৌলিক ও লব্ধ একক | Fundamental and Derived Units

মৌলিক একক ও লব্ধ একক কাকে বলে?

যে সকল একক স্বাধীন বা নিরপেক্ষ, যেগুলো অন্য এককের উপর নির্ভর করে না বরং অন্যান্য একক এদের উপর নির্ভর করে তাদেরকে মৌলিক একক বলে। যেসব একক মৌলিক একক থেকে লাভ করা যায় তাদের বলা হয় লব্ধ একক।

পরিমাপের মূলনীতি | Principle of Measurements


পর্যবেক্ষণ ও পরীক্ষণের ক্রমবিকাশ এবং গুরুত্ব | Importance and Development of Observations and Experiment


পরিমাপের ত্রুটি | Errors in Measurement

যান্ত্রিক ত্রুটি

পরীক্ষাগারে পরিমাপের জন্য যে সকল যন্ত্র ব্যবহার করা হয় সে সকল যন্ত্রের ত্রুটি থাকলে তাদের যান্ত্রিক ত্রুটি বলে।

পরম ত্রুটি

কোনো একটি রাশির প্রকৃত মান ও পরিমাপকৃত মানের পার্থক্যকে পরম ত্রুটি বলে।

অতএব, পরম ত্রুটি = প্রকৃত মান ~ পরিমাপকৃত মান।

আপেক্ষিক ত্রুটি বা ভগ্নাংশ ত্রুটি

পরম ত্রুটি ও প্রকৃত মানের

নিয়মিত ত্রুটি কাকে বলে?

পরীক্ষাকালে কোনো কোনো ত্রুটির ফলে পরীক্ষাধীন রাশির পরীক্ষালব্ধ মান সর্বদাই এবং নিয়মিতভাবে রাশিটির প্রকৃত মান অপেক্ষা কম বা বেশি হতে পারে। এ ত্রুটিকে নিয়মিত ত্রুটি বলে।

অনিয়মিত ত্রুটি কাকে বলে?

ত্রুটির বিভিন্ন বিষয়ে উপযুক্ত সাবধানতা অবলম্বন করা সত্ত্বেও কোনো একটি রাশির পাঠ বারবার ভিন্ন হতে দেখা যায়। এ ধরনের ত্রুটিকে অনিয়মিত ত্রুটি বলে।

------------------------------------

ভৌতজগৎ কাকে বলে?

আমাদের চারপাশের যা কিছু নিয়ে বস্তু জগৎ গঠিত তাকে বলা হয় ভৌত জগৎ।

মনোজগৎ কাকে বলে?

আমাদের মন, আমাদের আবেগ-অনুভূতি, স্নেহ-মমতা, প্রেম-ভালোবাসা, আনন্দ-বেদনা ইত্যাদি নিয়ে জগৎ গঠিত তাকে বলা হয় মনোজগৎ।

বলবিজ্ঞান কাকে বলে?

পদার্থবিজ্ঞানের যে শাখা পদার্থের ভর, জড়তা, গতি, বল ইত্যাদি ধারণা আলোচনা করে তাকে বলবিজ্ঞান বলে।

তাপ ও তাপগতিবিজ্ঞান কাকে বলে?

পদার্থবিজ্ঞানের যে শাখা তাপমাত্রার পার্থক্যের দরুন তাপের সঞ্চালন, তাপকে কাজে রূপান্তরের মাধ্যমে তাপীয় ইঞ্জিনের কর্মপদ্ধতি আলোচনা করে তাকে তাপ ও তাপগতিবিজ্ঞান বলা হয়।

শব্দ বিজ্ঞান কাকে বলে?

পদার্থবিজ্ঞানের যে শাখায় শব্দের উৎপত্তি, সঞ্চালন, বিভিন্ন মাধ্যমে শব্দের গতি, শব্দের ব্যবহার ও শব্দদূষণ নিয়ে আলোচনা করা হয় তাকে শব্দবিজ্ঞান বলে।

আলোকবিজ্ঞান কাকে বলে?

আলোকবিজ্ঞান পাঠে জানা যায় আমরা কীভাবে দেখতে পাই, হীরকের দ্যুতি কী করে হয়। আলো কীভাবে সঞ্চালিত হয়, বিভিন্ন আলোকযন্ত্র আমাদের বিভিন্ন কাজে কীভাবে সহায়তা করে।

তাড়িতচৌম্বক বিজ্ঞান কাকে বলে?

তাড়িতচৌম্বক বিজ্ঞানের আলোচ্য বিষয় স্থির ও গতিশীল আধান, তড়িৎ ও চৌম্বক ক্ষেত্রের পারস্পরিক সম্পর্ক। তড়িৎ ও চুম্বকের মৌলিক সূত্রাবলি, তাদের ব্যবহার এবং নানাবিধ তড়িৎ যন্ত্রপাতি নিয়েও আলোচনা করা হয় এই শাখায়।

আধুনিক পদার্থবিজ্ঞান কাকে বলে?

আধুনিক পদার্থবিজ্ঞানের আলোচ্য বিষয় কোয়ান্টাম, পারমাণবিক ও নিউক্লীয় পদার্থবিজ্ঞান ও আপেক্ষিকতাতত্ত্ব। ভরকে শক্তিতে রূপান্তর, বিভিন্ন ধরনের তেজষ্ক্রিয়তা এর অন্তর্ভূক্ত।

ইলেকট্রনিক্স কী?

ইলেকট্রনিক্সের আলোচ্য বিষয় অর্ধপরিবাহী পদার্থ, অর্ধপরিবাহী ডায়োড, ট্রানজিস্টর, যোগাযোগের বিভিন্ন মাধ্যম, রেডিও, টেলিভিশন, ফোন, ফ্যাক্স, কম্পিউটার, ইন্টারনেট ইত্যাদি।

পরিমাপ কাকে বলে?

কোনো কিছুর পরিমাণ নির্ণয় করাকে পরিমাপ বলে।

পরিমাপের একক কাকে বলে?

যে আদর্শ পরিমাণের সাথে তুলনা করে ভৌত রাশিকে পরিমাপ করা হয় তাকে বলা হয় পরিমাপের একক।

আয়ত একক ভেক্টর কাকে বলে?

ত্রিমাত্রিক কার্টেসীয় স্থানাঙ্ক ব্যবস্থার তিনটি ধনাত্মক অক্ষ বরাবর যে তিনটি একক ভেক্টর বিবেচনা করা হয় তাদেরকে আয়ত একক ভেক্টর বলে।

অবস্থান ভেক্টর কাকে বলে?

প্রসঙ্গ কাঠামোর মূল বিন্দুর সাপেক্ষে কোনো বিন্দুর অবস্থান যে ভেক্টর দিয়ে নির্দেশ করা হয় তাকে অবস্থান ভেক্টর বলে।

সরণ ভেক্টর কাকে বলে?

কোনো বস্তুর অবস্থান ভেক্টরের পরিবর্তনকে সরণ ভেক্টর বলে।

ভেক্টর যোগের সামান্তরিক সূত্র

যদি একটি সামান্তরিকের কোনো কৌণিক বিন্দু থেকে অঙ্কিত দুটি সন্নিহিত বাহু দ্বারা কোনো কণার উপর এককালীন ক্রিয়াশীল একই জাতীয় দুটি ভেক্টরের মান ও দিক নির্দেশ করা যায়, তাহলে ঐ বিন্দু থেকে অঙ্কিত সামান্তরিকের কর্ণটি ভেক্টর দুটির মিলিত ফলের বা লব্দির মান ও দিক নির্দেশ করে।

ভেক্টরের উপাংশ কাকে বলে?

একটি ভেক্টরকে দুই বা ততোধিক ভেক্টর রাশিতে বিভক্ত করলে বিভক্ত অংশগুলোকে মূল ভেক্টরের উপাংশ বলে।

স্কেলার গুণফল বা ডট গুণফল

দুটি ভেক্টরের গুণনে যদি একটি স্কেলার রাশি পাওয়া যায় তবে ভেক্টরদ্বয়ের মান ও এদের মধ্যবর্তী ক্ষুদ্রতর কোণের cosine-এর গুণফলকে স্কেলার গুণফল বলে।

অপারেটর কী?

যে গাণিতিক ক্রিয়া একটি রাশিকে অন্য রাশিতে রূপান্তরিত করে তাকে অপারেটর বলে।

ব্যবহারিক একক কাকে বলে?

কোনো কোনো মৌলিক একক খুব বড় বা ছোট হওয়ায় ব্যবহারিক কাজে তাদের উপগুণিতক (ভগ্নাংশ) বা গুণিতককে একক হিসেবে ব্যবহার করা হয়। এর নাম ব্যবহারিক একক।

মাত্রা কাকে বলে?

কোনো একটি রাশি এবং তার মৌলিক এককের মধ্যে সম্পর্ক স্থাপনের জন্য যে সংকেত ব্যবহার করা হয় তাকে উক্ত রাশির মাত্রা বলে।

মাত্রা সমীকরণ কাকে বলে?

কোনো ভৌত রাশি যদি একাধিক রাশির উপর নির্ভর করে, তাবে দুই পাশের রাশিগুলোর মান না লিখে কেবলমাত্র মাত্রা লিখলে যে সমীকরণ পাওয়া যায় তাকে রাশগুলোর মাত্রা সমীকরণ বলে।

*


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন