পোস্টগুলি

Featured Post

সিস্টেম

সিস্টেম (System) সিস্টেম বা ব্যবস্থা কাকে বলে? পরীক্ষা-নিরীক্ষার সময় আমরা জড় জগতের খানিকটা নির্দিষ্ট অংশ বিবেচনা করি। জড় জগতের এই নির্দিষ্ট অংশকে সিস্টেম বা ব্যবস্থা বলে। সিস্টেমের বহির্ভূত সব কিছুকেই এর পরিবেশ বলে গণ্য করা হয়। তাপগতীয় স্থানাঙ্ক কাকে বলে? তাপগতিবিদ্যায় কিছু রাশির সাহায্যে কোনো সিস্টেমকে বর্ণনা করা হয়। তাপগতীয় আলোচনার জন্য সাম্যাবস্থায় চাপ P, আয়তন V এবং উষ্ণতা T-এর সাহায্যে সিস্টেমকে বর্ণনা করা যায়। এই রাশিগুলোকে তাপগতীয় স্থানাঙ্ক বলে। তাপগতীয় প্রক্রিয়া কাকে বলে? যে পরিবর্তনের কারণে তাপগতীয় স্থানাঙ্কের মানের পরিবর্তন হয় সেই পরিবর্তনকে তাপগতীয় প্রক্রিয়া বলে। সিস্টেমের প্রকারভেদ প্রত্যেক সিস্টেমের একটা নির্দিষ্ট আয়তন, ভর ও অভ্যন্তরীণ শক্তি থাকে। সিস্টেম বিভিন্ন ধরনের হয়। যেমন- উন্মুক্ত সিস্টেম, বদ্ধ সিস্টেম এবং বিচ্ছিন্ন সিস্টেম। উন্মুক্ত সিস্টেম কাকে বলে? যে সিস্টেম পরিবেশের সাথে ভর ও শক্তি উভয়ই বিনিময় করতে পারে তাকে উন্মুক্ত সিস্টেম বলে। বদ্ধ সিস্টেম কাকে বলে? যে সিস্টেম পরিবেশের সাথে শুধু শক্তি বিনিময় করতে পারে কিন্তু ভর বিনিময় করতে পারে তাকে উন্মুক্ত সিস্টেম বলে। বি

তাপগতিবিদ্যার প্রথম সূত্রের ধারণা

তাপগতিবিদ্যার প্রথম সূত্রের ধারণা বিজ্ঞানী জুল সর্বপ্রথম কাজ ও তাপের মধ্যে একটি সম্পর্ক নির্ণয় করেন এবং এ সম্পর্কটি একটি সূত্রের আকারে প্রকাশ করেন। এই সূত্রকে জুলের সূত্র বলে। এই সূত্রকে তাপগতিবিদ্যার প্রথম সূত্রও বলা হয়। সূত্রঃ যান্ত্রিক শক্তি তথা কাজকে তাপে বা তাপ শক্তিকে কাজে তথা যান্ত্রিক শক্তিতে রূপান্তরিত করা হলে যান্ত্রিক শক্তি ও তাপ পরস্পরের সমানুপাতিক হবে। এই সূত্রানুসারে,        W α H বা, W = JH এখানে, W হলো কাজের পরিমাণ, H হলো তাপের পরিমাণ এবং J হচ্ছে জুলের ধ্রুবক, একে বলা হয় তাপের যান্ত্রিক তুল্যাঙ্ক বা তাপের যান্ত্রিক সমতা। তাপের যান্ত্রিক তুল্যাঙ্ক বা তাপের যান্ত্রিক সমতা কাকে বলে? একক তাপ উৎপন্ন করতে যে পরিমাণ কাজ করতে হয় বা একক তাপ দ্বারা যে পরিমাণ কাজ করা যায় তাকে তাপের যান্ত্রিক তুল্যাঙ্ক বা তাপের যান্ত্রিক সমতা বলে। পদার্থবিজ্ঞান ২য় পত্র অধ্যায় - ১ : তাপগতিবিদ্যা অধ্যায় - ২ : স্থির তড়িৎ অধ্যায় - ৩ : চল তড়িৎ অধ্যায় - ৪ : তড়িৎ প্রবাহের চৌম্বক ক্রিয়া ও চুম্বকত্ব অধ্যায়- ৫ : তড়িৎ চৌম্বকীয় আবেশ ও পরিবর্তী প্রবাহ অধ্যায় - ৬ : জ্যামিতিক আলোকবিজ্ঞান অধ্যায় - ৭ : ভৌত আলোক

তাপমাত্রা পরিমাপের নীতি

ছবি
তাপমাত্রা পরিমাপের নীতি তাপ কাকে বলে? তাপ হচ্ছে শক্তির একটি রূপ যা বস্তুর অভ্যন্তরীণ শক্তির সাথে সম্পর্কিত। দুটি বস্তু পরস্পরের সংস্পর্শে আনলে তাপের আদান প্রদান ঘটতে পারে। এই আদান প্রদান ঘটবে কিনা তা নির্ভর করবে বস্তুদ্বয়ের তাপীয় অবস্থার উপর। তাপীয় সমতা কাকে বলে? যে অবস্থায় পরস্পরের সংস্পর্শে থাকা বস্তুগুলোর মধ্যে তাপের আদান প্রদান ঘটে না তাকে তাপীয় সমতা বলে। তাপমাত্রা কাকে বলে? তাপমাত্রা বা উষ্ণতা হচ্ছে বস্তুর তাপীয় অবস্থা যা নির্ধারণ করে বস্তুটিকে অন্য বস্তুর তাপীয় সংস্পর্শে রাখলে তাপ দেবে না নেবে। থার্মোমিটার কাকে বলে? যে যন্ত্রের সাহায্যে কোনো বস্তুর তাপমাত্রা সঠিকভাবে পরিমাপ করা যায় এবং বিভিন্ন বস্তুর তাপমাত্রার পার্থক্য নির্ণয় করা যায় তাকে থার্মোমিটার বলে। তাপগতিবিদ্যার শূন্যতম সূত্র দুটি বস্তু যদি তৃতীয় কোনো বস্তুর সাথে তাপীয় সাম্যাবস্থায় থাকে তবে প্রথমোক্ত বস্তু দুটি পরস্পরের সাথে তাপীয় সাম্যাবস্থায় থাকবে।  আর. এইচ. ফাওলার এই সূত্রটিকে তাপ গতিবিদ্যার শূন্যতম সূত্র (Zeroth law of thermodynamics) নামে অভিহিত করেন। তাপীয় সাম্যাবস্থার উপরিউক্ত সূত্রের ওপর ভিত্তি করেই থার্মোমিটা

ইতিহাস এবং পৌরনীতি ও সুশাসন একে অন্যের পরিপূরক

ইতিহাস এবং পৌরনীতি ও সুশাসন একে অন্যের পরিপূরক  পৌরনীতি ও সুশাসনের আলোচিত বিভিন্ন বিষয়সমূহের অতীত ও বিবর্তনের ধারা ইতিহাস থেকে জানা যায়। আবার, পৌরনীতির বর্তমান বিষয়সমূহ হয়তো অনাগত ভবিষ্যতে ইতিহাসে পরিণত হবে। আবার, ইতিহাস ব্যতীত পৌরনীতি যেমন ভিত্তিহীন, তেমনি পৌরনীতি ব্যতীত ইতিহাস মূল্যহীন। এভাবে পৌরনীতি ও সুশাসনের সাথে ইতিহাসের নির্ভরশীলতা ও সহযোগিতার নিবিড় ও অবিচ্ছেদ্য সম্পর্ক গড়ে উঠেছে। এভাবেই ইতিহাস এবং পৌরনীতি ও সুশাসন একে অন্যের পরিপূরক হিসেবে বিরাজ করে। আরো পড়ুনঃ স্যামসন এইচ চৌধুরী ফার্মেসীকেই কেন ব্যবসায় হিসেবে গ্রহণ করেন? বিচার বিভাগীয় পর্যালোচনা কি? অমাধ্যম অনুমান কাকে বলে? অমাধ্যম অনুমানের বৈশিষ্ট্য, যুক্তিবিদ ওয়েল্টন, অমাধ্যম অনুমান প্রকৃত অনুমান মনে করেন কেন? অমাধ্যম অনুমানের শ্রেণিবিভাগ স্মৃতি কাকে বলে? স্মৃতির উপাদান, ধৃতি, পুনরুদ্রেক, প্রত্যভিজ্ঞা, স্থান - কাল নির্দেশ শিক্ষা মনোবিদ্যা কাকে বলে? শিক্ষা ও মনোবিজ্ঞানের সম্পর্ক, শিক্ষা মনোবিদ্যার প্রাথমিক উপাদান, শিক্ষা মনোবিজ্ঞান ও মনোবিজ্ঞানের মধ্যে তুলনামূলক আলোচনা

উদ্যোগ উন্নয়নে সহায়ক সেবা প্রয়োজন কেন?

উদ্যোগ উন্নয়নে সহায়ক সেবা প্রয়োজন কেন? ব্যবসায় স্থাপন ও সঠিকভাবে পরিচালনা করতে সহায়তা প্রয়োজন হয়। নতুন ব্যবসায় বা শিল্প স্থাপন একটি সৃজনশীল ও ঝুঁকিপূর্ণ কাজ। এজন্য বিভিন্ন ধরনের সহায়তা প্রয়োজন হয়। উদ্দীপনামূলক সহায়তা উদ্যোক্তা ব্যবসায় স্থাপনে অনুপ্রাণিত করে। সমর্থনমূলক সহায়তা ব্যবসায় বা শিল্প স্থাপনে আর্থিক সাহায্য করে। আবার সংরক্ষণমূলক সহায়তা ব্যবসায়ের কার্যক্রম পরিচালনা এবং সম্প্রসারণের প্রতিবন্ধকতা দূর করে। এভাবে বিভিন্ন সহায়তা শিল্প স্থাপন ও সম্প্রসারণের পথ সহজ করে। আরো পড়ুনঃ বৈজ্ঞানিক ব্যবস্থাপনা কাকে বলে? ব্যাংক কাকে বলে? প্রোটোপ্লাজম কাকে বলে? বৈধ ক্ষমতা কাকে বলে? বাঙালি জাতীয়তাবাদ কাকে বলে? প্রস্বেদন কাকে বলে? প্রস্বেদনের প্রকারভেদ সমগোত্রীয় শ্রেণি কাকে বলে? মুত্তাকী কাকে বলে?

সরকার কর্তৃক কোনো শিল্পকে বিশেষ সুবিধা দেওয়া কোন ধরনের সহায়তা কেন?

সরকার কর্তৃক কোনো শিল্পকে বিশেষ সুবিধা দেওয়া কোন ধরনের সহায়তা কেন? সরকার কর্তৃক কোনো শিল্পকে বিশেষ সুবিধা দেওয়া সংরক্ষণমূলক সহায়তা অন্তর্ভুক্ত। সরকার অনেক সময় কোনো বিশেষ শিল্পকে টিকিয়ে রাখতে পৃষ্ঠপোষকতা করে থাকে। এক্ষেত্রে সরকার ভর্তুকি দেয়, বিনা সুদে ঋণ দেয়। এতে এসব শিল্প স্থাপনে উদ্যোক্তারা আগ্রহী হয়। যেমন: তাঁতশিল্প রক্ষা, বেত, বাঁশ, তামা, কাঁসা ও পাট শিল্পে সরকার বিশেষ প্রণোদনা দেয়। আর এগুলো সংরক্ষণমূলক সহায়তা অন্তর্ভুক্ত। আরো পড়ুনঃ নেতৃত্বের সাথে তুলনীয় ব্যবস্থাপকীয় কাজ কী? ব্যবস্থাপনার কোন কাজটিকে নেতৃত্বের সাথে তুলনা করা হয়? ব্যবসায়ের ভবিষ্যৎ কার্যক্রমের প্রতিচ্ছবি কোনটি? নির্দেশনা কাকে বলে? নির্দেশনার বৈশিষ্ট্য

বাণিজ্যিক ব্যাংক কীভাবে শিল্পোন্নয়নে সহায়তা করে?

বাণিজ্যিক ব্যাংক কীভাবে শিল্পোন্নয়নে সহায়তা করে? বাণিজ্যিক ব্যাংক শিল্পক্ষেত্রে আর্থিক সহায়তা বা ঋণ দেওয়ার মাধ্যমে শিল্পোন্নয়নে সহায়তা করে। দেশের চারটি রাষ্ট্রায়ত্ত বাণিজ্যিক ব্যাংক (সোনালী, জনতা, অগ্রণী ও রূপালী ব্যাংক) এবং বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক তাদের বিভিন্ন শাখার মাধ্যমে উদ্যোক্তাদের আর্থিক সেবা দিয়ে আসছে। এক্ষেত্রে ব্যবসায় বা প্রকল্পের ধরন অনুযায়ী ঋণসীমা সর্বনিম্ন ৫০ হাজার টাকা থেকে সর্বোচ্চ ১০ কোটি টাকা হয়ে থাকে। শিল্পোদ্যোক্তারা এ ঋণ নিয়ে সহজে তাদের শিল্প স্থাপন করতে পারেন। ফলে দেশের শিল্পোন্নয়ন হয়। আরো পড়ুনঃ বিজনেস ট্রাস্ট কাকে বলে? ইমালসন পলিমারাইজেশন কাকে বলে? ব্যবসায়ী সুষ্ঠু আন্তরিক সম্পর্ক প্রয়োজন কেন? ব্যবসায়ের আইনগত পরিবেশ কাকে বলে? উদ্যান ফসল কাকে বলে? উদ্যান ফসলের প্রকারভেদ, উদ্যান ফসলের বৈশিষ্ট্য, উদ্যান ফসলের গুরুত্ব, মাঠ ফসল ও উদ্যান ফসলের তুলনামূলক বৈশিষ্ট্য ব্যাংক কাকে বলে?

ঋণ দেওয়ার ক্ষেত্রে নারী উদ্যোক্তাদের অগ্রাধিকার দেওয়া হয় কেন?

ঋণ দেওয়ার ক্ষেত্রে নারী উদ্যোক্তাদের অগ্রাধিকার দেওয়া হয় কেন? কোনো প্রতিষ্ঠানের মালিক হলে বা অংশীদারি ও কোম্পানির ক্ষেত্রে অন্যূন ৫১% শেয়ারের মালিক হলে তাকে নারী উদ্যোক্তা বলে। বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার প্রায় ৫০ শতাংশই নারী। তাদের অংশগ্রহণ ছাড়া দেশের সামগ্রিক অর্থনৈতিক উন্নয়ন সম্ভব নয়। বর্তমানে নারীরা শিক্ষা অর্জনের পাশাপাশি অন্যান্য কাজেও দক্ষতা অর্জন করছে। ফলে তাদের নিজেদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করার পাশাপাশি জাতীয় আয় বাড়াতে অবদান রাখছে। তাই তাদেরকে আরও এগিয়ে যেতে ঋণ দেওয়ার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দেওয়া হয়। আরো পড়ুনঃ নেতৃত্বের সাথে তুলনীয় ব্যবস্থাপকীয় কাজ কী? ব্যবস্থাপনার কোন কাজটিকে নেতৃত্বের সাথে তুলনা করা হয়? ব্যবসায়ের ভবিষ্যৎ কার্যক্রমের প্রতিচ্ছবি কোনটি? নির্দেশনা কাকে বলে? নির্দেশনার বৈশিষ্ট্য

সর্বাধিক পঠিত পোষ্টসমূহ

বিশ্ব উষ্ণায়ন কাকে বলে? বিশ্ব উষ্ণায়নের কারণ, বিশ্ব উষ্ণায়নের প্রভাব

ব্যবস্থাপনা কাকে বলে?

গণতন্ত্র কাকে বলে? গণতন্ত্রের প্রকারভেদ ও গণতন্ত্রের বৈশিষ্ট্য

গুণনীয়ক কাকে বলে?

তাপগতিবিদ্যার প্রথম সূত্রের ধারণা

স্বাভাবিক সংখ্যা কাকে বলে?

মাখরাজ কাকে বলে? মাখরাজ কয়টি এবং কি কি?

উদ্যোগ উন্নয়নে সহায়ক সেবা প্রয়োজন কেন?

কাজ কাকে বলে? কাজ কত প্রকার ও কি কি? ধনাত্মক কাজ ও ঋণাত্মক কাজ

আলোর প্রতিসরণ কাকে বলে?