পোস্টগুলি

নতুন পোষ্ট

শিল্প কাকে বলে?

শিল্প কাকে বলে? যে প্র্রক্রিয়ার মাধ্যমে প্রাকৃতিক সম্পদ আহরণ এবং একে উপযোগ সৃষ্টির মাধ্যমে মানুষের উপযোগী পণ্য প্রস্তুত করা হয় তাকে শিল্প বলে। শিল্প উৎপাদনের বাহন। উৎপাদনের প্রক্রিয়া ও কর্মপ্রচেষ্টার ভিন্নতার কারণে শিল্পকে প্রধানত নিম্নোক্ত ভাগে ভাগ করা যায়। প্রজনন শিল্পঃ যে শিল্পে উৎপাদিত সামগ্রী পুনরায় সৃষ্টি বা উৎপাদনের কাজে ব্যবহৃত হয় তাকে প্রজনন শিল্প বলে। যেমনঃ হ্যাচারী, নার্সারী, হাঁস-মুরগীর খামার প্রভৃতি। নির্মাণ শিল্পঃ যে শিল্পের মাধ্যমে রাস্তাঘাট, সেতু, বাঁধ, দালান কোঠা ইত্যাদি নির্মাণ করা হয় তাকে নির্মাণ শিল্প বলে। প্রস্তুত শিল্পঃ শ্রম ও যন্ত্রের সাহায্যে বিভিন্ন প্রক্রিয়ায় কাঁচামাল বা অর্ধ প্রস্তুত জিনিসকে মানুষের ব্যবহার উপযোগী পণ্যে প্রস্তুত করার প্রচেষ্টাকে প্রস্তুত শিল্প বলে। রেয়ন শিল্প, ইস্পাত শিল্প প্রভৃতি। সেবা পরিবেশক শিল্পঃ যে শিল্পে মানুষের জীবনযাত্রা সহজ ও আরামদায়ক করার কাজে নিয়োজিত থাকে তাকে সেবা পরিবেশক শিল্প বলে। যেমনঃ গ্যাস, বিদ্যুৎ, টেলিফোন প্রভৃতি প্রতিষ্ঠান এরূপ শিল্পের আওতাভুক্ত। নিষ্কাশন শিল্পঃ যে শিল্প প্রচেষ্টার মাধ্যমে ভূ-গর্ভস্থ পানি বা বায়ু

মনোস্যাকারাইড কাকে বলে?

মনোস্যাকারাইড কাকে বলে? যেসকল কার্বোহাইড্রেটকে পানি বিশ্লেষণের দ্বারা ক্ষুদ্রতর অণুতে পরিণত করা যায় না তাদেরকে মনোস্যাকারাইড বলে।  এদের সাধারণ সংকেত এবং তাদের অণুতে তিন হতে আটটি কার্বন পরমাণু থাকতে পারে। যেমনঃ পেন্টোজ, গ্লুকোজ ইত্যাদি। আরো পড়ুনঃ ডাইস্যাকারাইড কাকে বলে? পলিস্যাকারাইড কাকে বলে? অলিগোস্যাকারাইড কাকে বলে? সেলুলোজ কি বা সেলুলোজ কাকে বলে? স্টার্চ কি বা স্টার্চ কাকে বলে?

ডাইস্যাকারাইড কাকে বলে?

ডাইস্যাকারাইড কাকে বলে? যেসকল কার্বোহাইড্রেটকে আর্দ্র বিশ্লেষণ করে দুটি মনোস্যাকারাইড অণু পাওয়া যায় তাদেরকে ডাইস্যাকারাইড বলে। যেমনঃ ইক্ষু চিনি।  একে পানি দ্বারা আর্দ্রবিশ্লেষিত করলে সমপরিমাণ গ্লুকোজ ও ফ্রুক্টোজ পাওয়া যায়। আরো পড়ুনঃ অলিগোস্যাকারাইড কাকে বলে? সেলুলোজ কি বা সেলুলোজ কাকে বলে? স্টার্চ কি বা স্টার্চ কাকে বলে? ক্রেতা ভ্যালু কি? শিক্ষা মনোবিদ্যা কাকে বলে?

পলিস্যাকারাইড কাকে বলে?

পলিস্যাকারাইড কাকে বলে? যে সকল কার্বোহাইড্রেটকে আর্দ্র বিশ্লেষণ করে অনেকগুলি মনোস্যাকারাইড অণু পাওয়া যায় তাদেরকে পলিস্যাকারাইড বলে। এরা পানিতে অদ্রবণীয় ও স্বাদহীন। যেমনঃ স্টার্চ, সেলুলোজ ইত্যাদি। আরো পড়ুনঃ পরিপাক কাকে বলে? কার্বোহাইড্রেট কী? অলিগোস্যাকারাইড কাকে বলে? জিনোম সিকোয়েন্সিং কাকে বলে? অধিকার কাকে বলে? যৌগিক পদার্থ কাকে বলে?

অলিগোস্যাকারাইড কাকে বলে?

অলিগোস্যাকারাইড কাকে বলে? যে সমস্ত পলিস্যাকারাইডকে আর্দ্র বিশ্লেষণ করলে নির্দিষ্ট সংখ্যক (২ থেকে ৯ টি) মনোস্যাকারাইড পাওয়া যায় সেই সকল পলিস্যাকারাইডকে অলিগোস্যাকারাইড বলে।  যেমনঃ ডাইস্যাকারাইড, ট্রাইস্যাকারাইড ইত্যাদি। আরো পড়ুনঃ ইলেকট্রন বিন্যাস কাকে বলে? অনুসারী শিল্প কাকে বলে? নিউক্লিয়াস কাকে বলে? রসায়ন ভর সংখ্যা কাকে বলে? ধাতু কাকে বলে?

সেলুলোজ কি বা সেলুলোজ কাকে বলে?

সেলুলোজ কাকে বলে? সেলুলোজ হলো β-D গ্লুকোজের পলিমার। β-D গ্লুকোজের একটি অণুর এক নম্বর কার্বন(C 1 ) এর সাথে অপর একটি β-D গ্লুকোজ অণুর চার নম্বর কার্বন(C 4 ) β- গ্লাইকোসাইড বন্ধনের মাধ্যমে সেলুলোজ গঠিত হয়।  রাসায়নিক ভাবে সেলুলোজ হলো গ্লাইকোসাইড বন্ধন দ্বারা গঠিত গ্লুকোজের সরল রৈখিক পলিমার। এতে 3000 থেকে 25000 একক β-D গ্লুকোজ অণু বিদ্যমান থাকে। আরো পড়ুনঃ ঘনীভবন পলিমারকরণ কি? থার্মোপ্লাস্টিক কি? ইমালসন পলিমারাইজেশন কাকে বলে? নাইলনকে নন সেলুলোজিক তন্তু বলা হয় কেন ব্যাখ্যা কর।

স্টার্চ কি বা স্টার্চ কাকে বলে?

স্টার্চ কাকে বলে? স্টার্চ হচ্ছে α-D গ্লুকোজের পলিমার। অনেকগুলি α-D গ্লুকোজ অণু α-গ্লাইকোসাইড বন্ধনের মাধ্যমে স্টার্চ গঠন করে। তবে স্টার্চ অ্যামাইলেজ ও অ্যামাইলোপেকটিন নামক দুটি পলিস্যাকারাইড এর সমন্বয়ে গঠিত শাখা শিকল। এতে অ্যামাইলেজ 10-20% ও অ্যামাইলোপেকটিন 80-90% বিদ্যমান থাকে। আরো পড়ুনঃ বায়োডিগ্রেডেবল কাকে বলে? ইমালসিফিকেশন কাকে বলে? ইমালসন পলিমারাইজেশন কাকে বলে? বায়োপলিমার কি? ডেরলিন কি?

সরকারি অর্থব্যবস্থা কাকে বলে?

সরকারি অর্থব্যবস্থা কাকে বলে? অর্থনীতির যে অংশ সরকার ও অন্যান্য রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানসমূহের আয়-ব্যয় সঞ্চয় ও বিনিয়োগ ইত্যাদি নীতি ও পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা করে তাকে সরকারি অর্থব্যবস্থা বলে। অধ্যাপক টেইলর এর মতে, "সরকারের অধীনে সংঘবদ্ধ জনগোষ্ঠী হিসেবে জনসাধারণের অর্থনৈতিক সমস্যা নিয়ে যে শাস্ত্র আলোচনা করে তাকে সরকারি অর্থব্যবস্থা বলে।" ডালটনের মতে, "সরকারি অর্থব্যবস্থা সরকারের আয় ও ব্যয় এবং তাদের মধ্যে সমন্বয় সাধন সম্পর্কে আলোচনা করে।" অর্থনীতিবিদ মাগ্রেভ এর মতে, "যে সমস্ত জটিল সমস্যা সরকারের আয়-ব্যয়কে কেন্দ্র করে আবর্তিত হয় তাকে সরকারি অর্থব্যবস্থা বলে।" রাষ্ট্রীয় আয়-ব্যয় দেশের জাতীয় আয়ের পরিমাণ ও মানুষের জীবনযাত্রার মানের উপর প্রভাব বিস্তার করে। রাষ্ট্রীয় আয় হ্রাস পেলে জনগণের আয় হ্রাস এবং রাষ্ট্রীয় আয় বৃদ্ধি পেলে জনগণের আয়ও বৃদ্ধি পায়। সরকারি অর্থব্যবস্থায় অর্থনীতির এমনকিছু অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড নিয়ে আলোচনা করা হয়, যেখানে সরকার জড়িত থাকে। একটি দেশের জনগণের সর্বোচ্চ কল্যাণ সাধন এবং অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনে সরকার কোন খাতে, কিভাবে, কোন নীতি অনুসরণ করে ব্যয় করবে ত

অন্যরা যা পড়ছেন...

তেজস্ক্রিয় আইসোটোপের ব্যবহার লিখ।

গণতন্ত্র কাকে বলে? গণতন্ত্রের প্রকারভেদ ও গণতন্ত্রের বৈশিষ্ট্য

সর্বাধিক পঠিত পোষ্ট সমূহ

গণতন্ত্র কাকে বলে? গণতন্ত্রের প্রকারভেদ ও গণতন্ত্রের বৈশিষ্ট্য

মানবিক মূল্যবোধ কি?

তেজস্ক্রিয় আইসোটোপের ব্যবহার লিখ।

উদ্ভিদ কোষ ও প্রাণী কোষের মধ্যে পার্থক্য

অণু ও পরমাণুর মধ্যে পার্থক্য লিখ।

সনেট কাকে বলে?

বিশ্ব উষ্ণায়ন কাকে বলে?